West Bengal

“মাদ্রাসা লাদেন তৈরির পাঠশালা মন্তব্য সায়ন্তনের;বাবরি মসজিদের রায়কে স্বাগত জানালেন তিনি” দ্রুতগামী সংবাদ

Spread the love

সেখানেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি।

বুধবার ২৮ বছরের পুরনো বাবরি মসজিদ মামলার চূড়ান্ত রায় দানে বিজেপির সমস্ত অভিযুক্ত খালাস পাওয়ার পর ওই বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে সায়ন্তন বসু বলেন,তিনি এই রায়কে স্বাগত জানাচ্ছেন। অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ খারিজ করেছে আদালত। বাবরি ধ্বংস পূর্বপরিকল্পিত নয়। এটি আচমকা একটি ঘটনা। অভিযুক্ত নেতারা ভিড়টিকে নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করেছিলেন। ফটোগ্রাফিক এভিডেন্স আদালত গ্রাহ্য প্রমাণ নয়। আর সেকারণেই বাবরি মসজিদ ধ্বংসের মামলায় বেকসুর খালাস পেয়েছেন সকলেই।”

এদিকে উত্তরপ্রদেশের গণধর্ষণকাণ্ডে তিনি তীব্র নিন্দা করেন এবং কঠোর শাস্তির দাবি করেন অভিযুক্তদের।

এছাড়া কৃষি বিল সম্পর্কে রাজ্যের শাসক দলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে যে এই বিল কৃষক বিরোধী এবং এই বিল কৃষকদের দুর্দিন ডেকে আনবে। এ বিষয়ে সায়ন্তন বসু বলেন, “এই বিল কৃষকদের নয় তৃণমূল কংগ্রেসের দুর্দিন ডেকে আনবে। এটি কৃষক বিরোধী অবশ্যই নয়।এই বিলের মাধ্যমে কৃষকরা নিজেদের ইচ্ছামত দামে যেকোনো জায়গায় তাদের ফসল বিক্রি করতে পারবেন। উদাহরণস্বরুপ এতদিন পর্যন্ত আলু কৃষকরা ৫ টাকায় ফড়েদের কাছে বিক্রি করছিলেন সাধারণ মানুষ সেই আলু ৪৫ টাকায় কিনছিলেন। মাঝখানে ফড়েরা ৩০ টাকা তৃণমূলকে দিয়ে বাকিটা মুনাফা অর্জন করত। কৃষি বিল আসার পর এই দালালরাজ এবং কাটমানিরাজ বন্ধ হবে।”

এছাড়া পশ্চিমবঙ্গের গভর্নর কিছুদিন আগে অভিযোগ করেন যে তাঁর পদকে রাবার স্ট্যাম্প হিসেবে দেখা হচ্ছে রাজ্য প্রশাসনের কাছে। এ বিষয়ে তার মন্তব্য জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন যে, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ভারতের সরকার এবং সংবিধানকে মানেন না। উনার আচরণে মনে হয় যে West Bengal has become an independent state.” এই আচরন কখনোই গ্রহণযোগ্য নয়। আমরা সামনের বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে দু’শোর বেশি আসন পাব এবং সরকার প্রতিষ্ঠা করব। আপনারা ছয় মাস অপেক্ষা করুন।”

এরই সঙ্গে তৃণমূলের তরফে প্রায়শই অভিযোগ করা হয় কেন্দ্রের ভ্রান্ত নীতির জন্য যুব সমাজ পিছিয়ে পড়ছে। এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে সায়ন্তন বসু প্রতিক্রিয়া দেন,” ঠিকই তো যুবসমাজ পিছিয়ে পড়ছে বলেই বিজেপি শাসিত রাজ্যে বাংলার ছেলে মেয়েরা চাকরি করতে যাচ্ছে ।আমরা সরকার প্রতিষ্ঠা করলে বাইরের বিজেপি শাসিত রাজ্যে চাকরি করতে যেতে হবে না। পশ্চিমবঙ্গের মানুষ পশ্চিমবঙ্গেই চাকরি করবে।”

ওই বেসরকারি হোটেলের বৈঠকের পর রাজ্য বিজেপির সহ – সভাপতি সায়ন্তন বসু আসানসোলের উত্তর ধাদকা অঞ্চলের বিজেপি পার্টি অফিসে একটি সাংবাদিক বৈঠক করেন।

previous arrow
next arrow
Shadow
Slider

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *